মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:৩৩ অপরাহ্ন

রাজাকার স্বাধীনতাবিরোধী মুক্ত পার্লামেন্ট

একুশে নিউজ
  • প্রকাশিত সময় : ৫ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:১১
  • ৩৪৫ এই সময়
  • শেয়ার করুন

শুক্রবার (৪ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রাণা দাশগুপ্ত এ আশা ব্যক্ত করেন। সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটির যুগ্মসাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত কুমার দেব, তাপস কুমার পাল, প্রিয়া সাহা ও বাসুদেব ধর প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

রাণা দাশগুপ্ত বলেন, নির্বাচনের ৬ মাস আগে থেকে রাষ্ট্র, সরকার, নির্বাচন কমিশন, রাজনৈতিক দল, সুশীল সমাজ, গণমাধ্যম ও আন্তর্জাতিক মহলের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য আমরা শঙ্কা ও উদ্বেগ প্রকাশ করেছি। নির্ভয়ে-নির্বিঘ্নে সংখ্যালঘুরা যাতে এবারের নির্বাচনে ভোট দিতে পারে, সেজন্য তারা এগিয়ে এসেছেন। এ জন্য তাদেরকে আমরা ধন্যবাদ জানাই।

তিনি বলেন, তফসিলের পর নির্বাচনী প্রচারে ধর্মীয় উপাসনালয় না করা, সাম্প্রদায়িক বক্তব্য না দেয়া, সর্বোপরি নির্বাচনে ধর্ম ও সাম্প্রদায়িকতার বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে নির্বাচন কমিশন। এবারই প্রথম সব রাজনৈতিক দল তা মেনেছে।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বলেন, এবারই সর্বপ্রথম আমাদের পেশকৃত দাবিকে বিবেচনায় নিয়ে নির্বাচন কমিশন তফসিল ঘোষণার পরপরই জাতীয় দৈনিকসমূহ এ বিজ্ঞাপন প্রকাশ করে। যাতে নির্বাচনে ধর্ম ও সাম্প্রদায়িকতার ব্যবহার সকল ধর্ম সম্প্রদায়ের উপাসনালয় নির্বাচনী কর্মকাণ্ডে ব্যবহার ও সাম্প্রদায়িক প্রচার প্রচারণামূলক বক্তব্য এবং বিবৃতি প্রদান নিষিদ্ধ করা হয়।

বক্তব্যে আরো বলেন, নির্বাচনের পূর্বাপর সময়ে ফেনীর সোনাগাজী, ঠাকুরগাঁওয়ের সদর উপজেলা, ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলা এবং পিরোজপুর এর স্বরূপকাঠিসহ বিচ্ছিন্নভাবে কিছু অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনা মোকাবেলায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণিকভাবে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। দুর্বৃত্তদের কাউকে কাউকে আটকও করেছে, ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসনের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। এতে সংখ্যালঘু ও জনমনে আশা ও আস্থা ফিরে আসতে শুরু করেছে। নির্বাচনে বিজয়ী সংখ্যাগরিষ্ঠ রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সুনির্দিষ্টভাবে তার নির্বাচনী ইশতেহারের সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক নির্মূল এর পাশাপাশি সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স অঙ্গীকার করেছেন। জিরো টলারেন্স ঘোষণা যাতে আক্ষরিকভাবে কার্যকর হয় তার জন্য ভবিষ্যৎ সরকারের প্রতি এই সংবাদ সম্মেলন থেকে আমরা আহ্বান জানাচ্ছি।

পার্লামেন্টের সরকারি দল ও বিরোধী দল ধর্মীয় জাতিগত সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর স্বার্থ ও অধিকার রক্ষায় সুস্পষ্টভাবে যে অঙ্গীকারসমূহ তাদের নির্বাচনী ইশতেহারে ঘোষণা করেছে, আমরা তা যথাযথভাবে পালনে তাদের ভূমিকা পার্লামেন্টের ভেতরে ও বাইরে প্রত্যক্ষ করবো এই প্রত্যাশা করছি। রাজনৈতিক দল ও জোট সমূহ কোনভাবেই জনগণকে নিরাশ করবেন না বলে আশা প্রকাশ করেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ।

সংবাদ সম্মেলন শেষে সদ্য প্রয়াত আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করা হয় ।

এই বিভাগের আরো খবর

ব্রেকিং:

বাংলাদেশ-কাতারের মধ্যে ১০ চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই

কাল ১২ ঘণ্টা গ্যাস থাকবে না যেসব এলাকায়

মালয়েশিয়ায় সামরিক মহড়ার সময় ২ হেলিকপ্টারের সংঘর্ষ, নিহত ১০

শ্রীলঙ্কায় রেস কার দুর্ঘটনায় নিহত ৭

অভিনেতা রুমি মারা গেছেন

চলতি মাসেই ঢাকা সফরে আসছেন দুই চীনা প্রতিনিধিদল

মার্কিন নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে সর্বশক্তি দিয়ে লড়াই করবেন নেতানিয়াহু

ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দিতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান তুরস্কের

বৃহস্পতিবার থেকে তাপমাত্রা আরও বাড়তে পারে

আজও ঢাকার তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি ছাড়াতে পারে