রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০১:০২ অপরাহ্ন

শুক্রবার স্কুল খোলা রাখা নিয়ে ‘হযবরল’ অবস্থা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে!

আনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত সময় : ৫ মে, ২০২৪, ৭:৩৬
  • ৮৫ এই সময়
  • শেয়ার করুন

রমজান, ঈদ ও গরমের কারণে টানা ১ মাসের বেশি সময় বন্ধের কবলে পড়ে ছিল দেশের শিক্ষাঙ্গন। এ অবস্থায় ঘাটতি পোষানোর উদ্যোগ নিতে চায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। তবে সেই উদ্যোগ নিতে গিয়ে মন্ত্রণালয় নিজেই বেশ ‘ভজঘট’ পাকিয়ে ফেলছে।

ঘটনার শুরু গত ৩০ এপ্রিল। সেদিন সচিবালয়ে এক ব্রিফিংয়ে শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, ‘প্রয়োজনে শুক্রবারও স্কুল খোলা রাখা হবে।’

ওইদিন রাতে মন্ত্রীর দেওয়া বক্তব্যের প্রেক্ষিতে সংবাদমাধ্যম গুলো যে খবর প্রকাশ করে তার প্রতিবাদ পাঠায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। ওই প্রতিবাদলিপিতে বলা হয়, শুক্রবার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা রাখা হবে এমন কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

এরপর আজ রবিবার (৫ মে) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেইজে একটি পোস্ট করা হয়। শিক্ষামন্ত্রীর বরাত দিয়ে ওই পোস্টে বলা হয়, ‘আমাদের এখন এক বছরে স্কুলের মোট কর্মদিবস ১৮৫টি। এর মধ্যে ২০ দিন নতুন কারিকুলামের মূল্যায়নের জন্য রাখা হয়েছে। স্কুলের কর্মদিবস যদি আরও কমে যায়, তবে শিক্ষা কার্যক্রম সচল রাখতে প্রয়োজনে শুক্রবারও ক্লাস নেওয়া হবে।’

এ খবর গণমাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ার দুই ঘণ্টার মধ্যে আবার সংশোধনী পাঠায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এক বিবৃতিতে তারা বলে, ‘শুক্রবার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ভেরিফায়েড পেইজে শিক্ষামন্ত্রীর বরাতে দেওয়া তথ্য ভুলবশত পোস্ট করা হয়েছে। এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। তবে পরবর্তী সিদ্ধান্ত না দেওয়া পর্যন্ত শনিবারের পাঠদান কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।’

তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকলেও গরম কিছুটা কমে আসায় সারা দেশে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আজ রবিবার থেকে ক্লাস শুরু হয়েছে।

কিছু শর্তসাপেক্ষে এ পাঠদান কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। শর্তগুলোর মধ্যে রয়েছে ক্লাস শুরুর আগে কোনো প্রতিষ্ঠানে অ্যাসেম্বলি করা যাবে না এবং ক্লাসের বাইরে অন্য কোনো শিক্ষা কার্যক্রমে শিক্ষার্থীদের নেওয়া যাবে না।

জানা যায়, তীব্র শীত ও গরম ছাড়াও নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে চলতি বছর এরই মধ্যে প্রায় ২০ দিনের বেশি অতিরিক্ত বন্ধ ছিল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। তীব্র তাপপ্রবাহের কারণে সবশেষ দুই সপ্তাহ বন্ধ ছিল। বন্ধের সময়ের শিখন ঘাটতি পূরণ করতে ‘প্রয়োজনে শুক্রবারও স্কুল খোলা রাখা হতে পারে’— সম্প্রতি শিক্ষামন্ত্রীর দেওয়া এমন বক্তব্যে সারা দেশে ‘নেতিবাচক’ আলোচনা শুরু হয়।

এই বিভাগের আরো খবর

ব্রেকিং:

চীনে ‘মি-টু’ আন্দোলনকারী এক নারীর কারাদণ্ড

আশুলিয়ায় ২০ কিলোমিটার যানজট

বিশ্বকাপ থেকে পাকিস্তানের বিদায়

দুপুরের মধ্যে ৬ জেলায় ঝড়ের আভাস

হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু

১৮ হাজার ৫৬৬টি পরিবারকে আজ বাড়ি হস্তান্তর করবেন প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘে আমেরিকা প্রস্তাবিত ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব পাস

বাংলাদেশ থেকে আরও দক্ষ কর্মী নেবে জাপান

মোদির নতুন মন্ত্রীসভায় থাকছেন যারা, তালিকা প্রকাশ

৭ দিনের রিমান্ডে কনস্টেবল কাউসার