শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ০৩:৪৫ অপরাহ্ন

পাঁচ ‘আতঙ্ক’ নিয়ে বাংলাদেশে ফিরছেন হাথরুসিং

একুশে নিউজ
  • প্রকাশিত সময় : রবিবার, ২২ জানুয়ারি, ২০২৩
  • ৭ এই সময়
  • শেয়ার করুন

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের কোচ হিসেবে চন্ডিকা হাথরুসিং এর ফেরা একরকম নিশ্চিত। বাকি শুধু আনুষ্ঠানিকতা। পুরোনো কোচ নতুন করে ফিরলে কেমন হতে পারে টাইগারদের চিত্রপট। এই বেলায় তিনি সফল হতে পারেন, নয়তো বা চরম ব্যর্থতায় ভরা থাকবে এ মেয়াদের পরিসংখ্যান। এসব আসলে বলে দেবে সময়। তবে তার কোচিংয়ে জাতীয় দলের দরজা কারো জন্য খুলতে পারে, আবার কারো জন্য বন্ধ হয়েও যেতে পারে! অন্যদিকে পরিবর্তন আসতে পারে অধিনায়কত্বেও!

প্রথমবার বাংলাদেশে এসে সাদা বলের ক্রিকেটের নেতৃত্ব তুলে দিয়ে ছিলেন মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার হাতে। তার ফলও পেয়ে ছিল টাইগাররা। ঘরের মাঠে অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠার পাশাপাশি তারা বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনাল ও আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফির সেমিফাইনালে খেলে ছিল। এবারও কি তেমন কোনো যাদু দেখাবেন তিনি? সেটা আলোচনায় তো থাকছেই। তবে হাথরু ঢাকায় ফিরছেন পাঁচ ‘আতঙ্ক’কে সঙ্গে নিয়ে।

টিম ডিরেক্টর নামে কোনো পদ থাকছে না

জাতীয় দলের সঙ্গে ক্রিকেট বোর্ডের একটি যোগসূত্র তৈরির লক্ষ্যেই এই পদের সৃষ্টি হয়ে ছিল। যার দায়িত্বে ছিলেন খালেদ মাহমুদ সুজন। ড্রেসিং রুমে তিনিই ছিলেন সর্বেসর্বা। তার ক্ষমতা ছিল কোচের চেয়েও বেশি। তবে এখন আর সেটা হবে না। হাথরুসিং কোচ হয়ে এলে, এই পদ আর থাকবে না। কারণ হাথরু সে সুযোগ দেবেন না। সুজন কোচের সঙ্গে লড়াইয়ে যাবেন না। তাই এই পদ বিলুপ্ত হতে চলেছে। যদি থাকেও সেটা শুধুই নামমাত্র। জাতীয় দলের সর্বময় ক্ষমতার অধিকারি থাকবেন হাথরুসিংহে।

‘হাতের পুতুল’ হয়ে যাবে নির্বাচক কমিটি

মিনহাজুল আবেদীন নান্নুর নেতৃত্বাধীন নির্বাচক কমিটি এমনিতেই ‘ঢাল নেই, তলোয়ার নেই, নিধিরাম সর্দার’ এর মতো। তাদের হাতে এমনিতেও বিশেষ ক্ষমতা নেই। হাথরুসিং কোচ হয়ে তিন সদস্যের নির্বাচক কমিটি হয়ে যাবে ‘হাতের পুতুল’। অতীতেও এমন নজির সৃষ্টি করে ছিলেন তিনি। ২০১৬ সালে নির্বাচকদের ক্ষমতা খর্ব করার চর্চা শুরু হয়ে ছিল। যেখানে প্রত্যক্ষ ভূমিকা ছিল হাথরুসিং এর। দ্বৈত নির্বাচক কমিটি গঠনের জের ধরে প্রধান নির্বাচক ফারুক আহমেদ দায়িত্ব ছেড়ে ছিলেন। আরও একবার সে নাটকের মঞ্চায়ন হতে চলেছে।

দ্বন্দ্ব হতে পারে সাকিবের সঙ্গে!

প্রথমবার টাইগারদের কোচ হয়ে এসেই সাকিব আল হাসানের সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে ছিলেন হাথরুসিং। সাকিবের সিপিএল খেলতে যাওয়া নিয়ে শুরু হয়ে ছিল সেই দ্বন্দ্ব। পরে ২০১৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় টেস্ট সিরিজ থেকে ছুটি চাওয়াতেও কোচ রেগে গিয়ে ছিলেন। যার জেরে ঘটনা গড়িয়ে ছিল বহুদূর। এবারও তেমন শঙ্কা রয়েছে। তবে সেই দ্বন্দ্বের জেরে হয়তবা বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার যেকোনো ফরম্যাট থেকে অবসরও নিয়ে ফেলতে পারেন। যেমনটা আগেরবার করেছিলে মাশরাফী।

ভারতে বিশ্বকাপ খেলা হচ্ছে না মাহমুদউল্লাহর!

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সঙ্গে এমনিতেও হাথরুসিং এর সম্পর্ক বিশেষ ভালো নয়। শ্রীলঙ্কায় শততম টেস্ট থেকে বাদ দেওয়া, ওয়ানডে দলে না রেখে দেশে পাঠিয়ে দেওয়ার প্রস্তুতি নেওয়া। এসব ঘটনা পুরোনো। তবে সেবার ঢাল হয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন তৎকালিন অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা। তাতে সে যাত্রা বেঁচে গেলেও এবার আর রক্ষা হচ্ছে না তার। ইতোমধ্যে টেস্ট থেকে অবসর নিয়েছেন রিয়াদ। টি-টোয়েন্টি দল থেকে বাদ পড়েছেন। এবার হাথরুসিং এর শিকার হয়ে তার ক্যারিয়ারের ইতি টানার আশঙ্কাই প্রবল। তাই এ বছর ভারতে অনুষ্ঠিতব্য ওয়ানডে বিশ্বকাপে তার না থাকার শঙ্কা রয়েছে।

চাপে থাকবেন ফর্মহীনরা

হাথরুসিং এর দলের ফর্মহীনদের কোনো জায়গা হয় না। মেধা থাকলেও সেটা মাঠে প্রয়োগ না করতে পারলে, বাদ পড়তে হবে দল থেকে। তাই ফর্মহীন ক্রিকেটাররা চাপে থাকবেন বেশি। এমনকি পারফর্ম করতে না পারলে জাতীয় দল থেকে হয়তোবা বাদ পড়তে পারেন মোস্তাফিজুর রহমানও। এই চাপে থাকার তালিকায় থাকতে পারেন মুমিনুল হক এবং মুশফিকুর রহিমও।

এই বিভাগের আরো খবর
ব্রেকিং:

প্রধানমন্ত্রী রবিবার ১,৩১৬.৯৭ কোটি টাকার প্রকল্প উদ্বোধন করবেন

‘পাঠান’ ছবি বাংলাদেশে আসার বিষয়ে যা বললেন কাদের

১২ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে বিপাকে সিলেট

‘পুতিন-জেলেনস্কির মধ্যে আলোচনা অসম্ভব’

ফিলিপাইনে মাংসের চেয়ে পেঁয়াজের দাম বেশি!

পাকিস্তানি রুপির ভয়াবহ দরপতন, ২৫৫ রুপিতে মিলছে ১ ডলার

ডিসেম্বরে ‘মুজিবগ্রাম সম্মেলন’

সেচ মৌসুমে তেমন লোডশেডিং থাকবে না: প্রতিমন্ত্রী

ইউক্রেনে চারটি লেপার্ড-২ ট্যাংক পাঠাবে কানাডা

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৭০