শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ০৪:৩২ অপরাহ্ন

বিডব্লিউআইটির সভাপতি রেজওয়ানা ও সাধারণ সম্পাদক আছিয়া

একুশে নিউজ
  • প্রকাশিত সময় : শুক্রবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ৩৩ এই সময়
  • শেয়ার করুন

বাংলাদেশ উইমেন ইন টেকনোলোজির (বিডব্লিউআইটি) নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটির (২০২৩- ২০২৫) সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন স্টার কম্পিউটার্স সিষ্টেম লিমিটেডের সিইও রেজওয়ানা খান এবং ওমেন ইন ডিজিটালের প্রতিষ্টাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক আছিয়া খালেদা নীলা। নির্বাচনে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বীতা না থাকায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত হন ১৩ সদস্য বিশিষ্ট এই কার্যনির্বাহী কমিটি।

নির্বাচনে উদ্যোক্তা, কর্পোরেট এবং প্রফেশনাল এই তিন বিভাগে সহসভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন যথাক্রমে অনুপম ইনফোটেকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাজনীন কামাল, পিডব্লিউসির পরিচালক রুমেসা হোসেইন এবং নর্থসাউথ ইউনিভার্সিটি কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. নোভা আহমেদ। যুগ্ম সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন জগন্নাথ ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. সেলিনা শারমিন, কোষাধ্যক্ষ হিসাবে নির্বাচিত হয়েছেন সালেহীন অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটসের প্রতিষ্ঠাতা নাজমুস সালেহীন।

এ ছাড়া পরিচালক হিসাবে নির্বাচিত হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবোটিক্স এ্ন্ড ম্যাকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. লাফিফা জামাল, টেকসলুশ্যানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাজনীন নাহার, বিডিওএনএসের সিইও কানিজ ফাতেমা, দোহাটেকের পরিচালক রীম শামসুদ্দোহা, দোহাটেকের প্রকল্প ব্যবস্থাপক তাসলিমা আক্তার এবং নটরডেম ইউনিভার্সিটির বাংলাদেশের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ফারনাজ নারিন নূর।

বাংলাদশে উইমেন ইন টেকনোলোজি ২০১২ সাল থেকে প্রযুক্তিতে নারীর অংশগ্রহণ বাড়াতে এবং তাদের দক্ষতা উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা লুনা শামছুদ্দোহার নেতৃত্বে নারীদের জন্য দেশের একমাত্র তথ্যপ্রযুক্তি ভিত্তিক সংগঠক বিডব্লিউআইটি তথ্যপ্রযুক্তিতে নারীর অংশগ্রহন বাড়াতে এবং দক্ষতা উন্নয়নে কাজ করেছে এসএমই ফাউন্ডেশন, আইসিটি ডিভিশন, এটুআই সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে।

রেজওয়ানা খান ২০০৪ সালে নর্থসাউথ বিশ্ববিদ্যালয় হতে কম্পিউটার সায়েন্সে পড়াশুনা শেষ করে পরিচালক হিসাবে যুক্ত হন স্টার কম্পিউটার্স সিস্টেমস লিমিটেডে। ২০০৭ সালে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে মাষ্টার্স করেন ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলম্বিয়া থেকে বং ফেলোশীপ করেন অষ্ট্রেলিয়ার ইউনিভার্সিটি অফ সাউথার্ন কুইন্সল্যান্ড থেকে।

আছিয়া খালেদা নীলা ২০০৭ সালে ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে স্নাতক শেষ করে তথ্যপ্রযুক্তি উদ্যেক্তা হিসাবে আত্মপ্রকাশ করেন। ২০১২ সালে গড়ে তোলেন নিজ প্রতিষ্ঠান ‘উইমেন ইন ডিজিটাল’। তথ্যপ্রযুক্তিতে নারীদের আগ্রহী করার পাশাপাশি তাদের সক্ষমতা বাড়িয়ে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলাই তাঁর প্রতিষ্ঠানের কাজ। গত ৯ বছরে দেশের প্রায় ১২ হাজার নারীকে প্রশিক্ষিত করেছে ‘উইমেন ইন ডিজিটাল’।

এই বিভাগের আরো খবর
ব্রেকিং:

প্রধানমন্ত্রী রবিবার ১,৩১৬.৯৭ কোটি টাকার প্রকল্প উদ্বোধন করবেন

‘পাঠান’ ছবি বাংলাদেশে আসার বিষয়ে যা বললেন কাদের

১২ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে বিপাকে সিলেট

‘পুতিন-জেলেনস্কির মধ্যে আলোচনা অসম্ভব’

ফিলিপাইনে মাংসের চেয়ে পেঁয়াজের দাম বেশি!

পাকিস্তানি রুপির ভয়াবহ দরপতন, ২৫৫ রুপিতে মিলছে ১ ডলার

ডিসেম্বরে ‘মুজিবগ্রাম সম্মেলন’

সেচ মৌসুমে তেমন লোডশেডিং থাকবে না: প্রতিমন্ত্রী

ইউক্রেনে চারটি লেপার্ড-২ ট্যাংক পাঠাবে কানাডা

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৭০