মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ০৯:০১ পূর্বাহ্ন

মন্ত্রিসভায় ইপিজেড শ্রমিক আইনের খসড়া অনুমোদন

একুশে নিউজ
  • প্রকাশিত সময় : ৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১০:৩৬
  • ১৭১ এই সময়
  • শেয়ার করুন

শিল্প-কারখানাগুলোতে কর্মবিরতি ও লকআউটের অধিকারসহ রপ্তানি প্রক্রিয়াজাতকরণ এলাকায় (ইপিজেড) ট্রেড ইউনিয়ন কার্যক্রমের অনুমতি দিয়ে মন্ত্রিসভা আজ খসড়া ‘বাংলাদেশ ইপিজেড লেবার এ্যাক্ট, ২০১৮’ অনুমোদন করেছে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আজ সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আওয়ামী লীগ সরকারের বর্তমান মেয়াদের মন্ত্রিসভার শেষ বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়।
সভা শেষে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. শফিউল আলম বলেন, ‘বাংলাদেশ শ্রম আইনের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে এই আইনটি প্রণয়ন করা হয়েছে। শ্রমিক বান্ধব করার লক্ষ্যে এই আইনে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) সুপারিশ এবং কানাডা ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পর্যবেক্ষণ অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।’ তিনি জানান, শ্রমিকদের জন্য নমনীয় করে এই আইন প্রণয়ন করা হয়েছে এবং একটি শ্রমিক সংগঠন গঠনের জন্য ন্যূনতম সদস্যপদের সীমা ৩০% থেকে কমিয়ে ২০% করা হয়েছে। এই আইন অনুসারে যেকোন ধর্মঘট কার্যকর করার জন্য ইপিজেড-এর শ্রমিক সংগঠনগুলোকে সেখানে কর্মরত শ্রমিকদের তিন-চতুর্থাংশের পরিবর্তে দুই-তৃতীয়াংশের সমর্থন প্রয়োজন হবে।
বাংলাদেশ শ্রম আইনের সাথে সঙ্গতি রেখে শ্রমিক সংগঠনগুলো তাদের শ্রমিক কল্যাণ সমিতির গঠনতন্ত্র প্রণয়ন করতে পারবে।
নতুন আইনে, চাকুরিতে ইস্তফা দেওয়ার জন্য একজন কর্মি ‘সার্ভিস বেনিফিট’ হিসাবে বিদ্যমান বিধান অনুযায়ী চাকুরি জীবনের প্রতিবছর থেকে ৩০ দিনের পরিবর্তে ৪৫দিনের বেনফিট পাবেন, যা চাকুরির ২৫ বছর পূর্ণ হওয়ার পর কার্যকর হবে।
এই আইনের আওতায়, বাংলাদেশ রপ্তানি প্রক্রিয়াজাতকরণ অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেপজা) পাশাপাশি ‘কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর’ কলকারখানাসমূহ পরিদর্শন করতে পারবে।
এ আইনে শ্রমিক কল্যাণ সমিতি ফেডারেশন গঠনের প্রস্তাব করা হয়েছে এবং শ্রমিক সংগঠন গঠনের পূর্বে ‘রেফারেন্ডাম’-এর বিধান ও নতুন শিল্পকারখানা প্রতিষ্ঠার তিন মাসের মধ্যে শ্রমিক সংগঠন গঠনের ওপর নিষেধাজ্ঞার বিধান বাতিল করা হয়েছে।

সংবাদপত্র ও সংবাদ সংস্থাসমূহে কর্মরত সাংবাদিক ও কর্মচারীদের নতুন নিয়মে বেতন-ভাতা ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা প্রদানের জন্য নবম ওয়েজবোর্ড রিপোর্ট মূল্যায়ন ও সরকারের নিকট উপস্থাপনের লক্ষ্যে মন্ত্রিসভা আজ সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রীর নেতৃত্বে ৫ সদস্যের একটি কেবিনেট কমিটি গঠনেরও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।
মন্ত্রী পরিষদ সচিব জানান, কমিটির সদস্যরা হচ্ছেন শিল্প, স্বরাষ্ট্র, তথ্য ও শ্রমমন্ত্রী। তথ্যমন্ত্রী এই কমিটিকে সাচিবিক সহায়তা দেবেন।
মন্ত্রী পরিষদ সচিব বলেন, ‘২০১৯ সালের ২৮ জানুয়ারির মধ্যে ওয়েজবোর্ডের গেজেট প্রকাশের বাধ্য-বাধকতা থাকায় অবিলম্বে এই রিপোর্ট পেশের জন্য কমিটিকে নির্দেশনা প্রদান করা হয়। তিনি আরো বলেন, কেবিনেট কমিটির মূল্যায়নের পর সাংবাদিকদের জন্য নবম ওয়েজবোর্ড রোয়েদাদ ঘোষণা করা হবে।
তাছাড়া মন্ত্রিসভার আজকের বৈঠকে বীমা কর্পোরেশন আইন, ২০১৮, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এভিয়েশন এন্ড এরোস্পেস ইউনিভার্সিটি আইন, ২০১৮, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট (সংশোধন) আইন, ২০১৮ এর খসড়া এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম (ভূমি অধিগ্রহণ) নিয়ন্ত্রণ, ১৯৫৮ এর সংশোধনীর খসড়ার অনুমোদন দেয়া হয়।

তথ্য সূত্র – বাসস

এই বিভাগের আরো খবর

ব্রেকিং:

আফগানিস্তানে হামলা চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা পাকিস্তানের

১৭ জেলায় হতে পারে ৬০ কিমি বেগে ঝড়, সতর্ক সংকেত

সরকারি হাসপাতালগুলোতে আছে রাসেল’স ভাইপারের এন্টিভেনম

বৃষ্টি অব্যাহত থাকতে পারে, কোথাও কোথাও ভারি বর্ষণের শঙ্কা

শিক্ষকদের কর্মবিরতিতে অচল ৫৫ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়

স্ত্রীকে ফেসবুক থেকে দূরে রাখা নিষ্ঠুরতার শামিল

রূপগঞ্জে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে বাড়ি ঘিরে রেখেছে এটিইউ

ধনী কর্মকর্তাদের সম্পদের উৎসের খোঁজ শুরু করছে দুদক

টি-২০ বিশ্বকাপে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সেরার পুরস্কার পেলেন যারা

এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার্থীদের মানতে হবে যেসব বিশেষ নির্দেশনা