আজ ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ শুক্রবার || ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ


আজ দলীয় নেতা-কর্মীদের সাথে নিয়ে মোহাম্মদপুরের নিজ এলাকার বিভিন্ন স্থানে পায়ে হেঁটে নির্বাচনী প্রচার করেন আসিফ আহমেদ। ছবি- একুশে নিউজ

আজ শনিবার দুপুরে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আসিফ আহমেদ ঘুড়ি প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর প্রথম নির্বাচনি প্রচারনা শুরু করেন। দলীয় নেতা-কর্মীদের সাথে নিয়ে মোহাম্মদপুরের নিজ এলাকার বিভিন্ন স্থানে পায়ে হেঁটে নির্বাচনী প্রচার করেন আসিফ আহমেদ।

উচ্ছ্বসিত আসিফ আহমেদ বলেছেন, ‘শান্তিপূর্ণভাবেই নির্বাচনী প্রচারণা চালাবো। ইতোমধ্যেই ভোটের আমেজ শুরু হয়েছে। যোগ্য প্রার্থী হিসেবেই লড়াই করে ভোটে জিততে চাই। আগামী ৩০ জানুয়ারি ভোটাররা স্বত:স্ফূর্তভাবে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ঘুড়ি প্রতীকে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন বলে আমি বিশ্বাস করি।’

তিনি বলেন, ‘অন্যসব প্রার্থীদের চেয়ে আমি আচরণবিধি কঠোরভাবে মেনে চলতে চাই। ভোটের অনুকূল পরিবেশ রয়েছে। মানুষজন স্বাচ্ছন্দ্যে ভোট দিতে প্রস্তুত।’

আসিফ আহমেদ বলেন, “আমি এলাকাবাসীর সেবার মনোভাব নিয়ে নির্বাচন করার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছি।বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আামাকে সমর্থন করেছেন এই জন্য আমাদের নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট কৃতজ্ঞ। জনগণ আমাকে নির্বাচিত করলে এলাকার এমপি ও মেয়র এর সহযোগীতায় জনগণের জন্য কাজ করে যাবো। আমার বিশ্বাস জনগণ আমাকে যোগ্য মনে করে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবেন।”

তরুণ এই রাজনীতিক বলেন, ‘স্বাধীনতার স্বপক্ষের মানুষদের এবং বঙ্গবন্ধু ও জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রার্থী আমি। আমি মনে করি আগামী ৩০ জানুয়ারি ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের সচেতন নাগরিকরা আমার পক্ষে রায় দেবেন।’ পুঞ্জিভূত নানা সমস্যায় ডুবন্ত ডিএনসিসির ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্ত ঘুরে ঘুরে সাধারণ মানুষকে নতুন মন্ত্রে উজ্জীবিত করছেন আসিফ আহমেদ।

সবার দোয়া ও সহযোগিতায় আগামী ৩০ জানুয়ারির ভোটে নির্বাচিত হলে ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডকে আধুনিক ও সমস্যামুক্ত একটি ওয়ার্ড হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে নিজের অঙ্গীকারের কথা জানান আসিফ আহমেদ। তিনি বলেন, ‘আমি আগেও বলেছি এবারও বলছি আমার বাবা-মা এই ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডবাসীকে কাঙ্খিত সেবা দিতেই আমাকে উৎস্বর্গ করেছেন।

অতীতেও যেমন তাদের দু:খে-সুখে পাশে ছিলাম। ভবিষ্যতেও একই ধারাবাহিকতায় পথ চলতে চাই। জননেত্রী শেখ হাসিনার জন্য যেমন আমার রক্তঋণ। তেমনি এই ওয়ার্ডবাসীর প্রতিও আমার গভীর মমত্ববোধ। তাদের সঙ্গেই বাকীটি জীবন কাটাতে চাই। এই ওয়ার্ডবাসীর যোগ্য সন্তান হিসেবেই আমি বিজয়মাল্য পড়তে চাই।’ এই নেতা দীর্ঘদিন ধরে এলাকার বিভিন্ন উন্নয়ন মুখি কর্মকান্ডে সমপৃক্ত রেখে নিজেকে সৎ ও নিষ্ঠার সাথে পরিচালনা করেছেন সর্বদা।

মতামত লিখুনঃ



আরও পড়ুন

জাতীয় অর্থনীতিতে নারীর অবদান সবচেয়ে বেশি, পলক

আন্তর্জাতিক অভিবাসন নিরাপদ ও মানবিক হতে হবে, মন্নুজান সুফিয়ান

অপরাধ দমনে পুলিশ কার্যকর ভূমিকা রাখছে,গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী

খেলাধুলার উন্নয়নে তৃণমূল থেকে আরো বেশি মেধা খুঁজে বের করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

রাজনীতি কেনাবেচার পণ্য নয়, কাদের

অর্থনীতি আয়কর মেলা : প্রথম দিনে আয় ২১৮ কোটি টাকা

আ’লীগের মনোনয়ন পেলেন যে তারকারা, যারা অপেক্ষায়

গত ৬ ডিসেম্বর কবি নজরুল কলেজের ছাত্রী নিখোঁজ

ঢাকা উত্তরের ৩৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আসিফ নির্বাচনি প্রচারনা শুরু

কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধিতে উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের বিকল্প নেই, কৃষিমন্ত্রী

© ২০১৮-২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | একুশেনিউজ২৪